নতুন ব্লগারদের প্রশ্ন উত্তর - পর্ব-২ | 2018

হ্যালো বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই আশা করি অনেক অনেক ভালো আজকের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ এই অনেক ইম্পরট্যান্ট হতে যাচ্ছে যদি আপনি একজন নতুন ব্লগার হয়ে থাকেন কারণ আজকে কিছু প্রশ্নের উত্তর আমি দিতে যাচ্ছি, যে প্রশ্নের উত্তর গুলো নতুন ব্লগাররা খুঁজে থাকেন বেশিরভাগ।
বন্ধুরা ব্লগিং নিয়ে আরো আর্টিকেল আমাদের এর আগে লেখা আছে সেগুলো পড়তে এখানে ক্লিক করুন
এবং এস ই ও সম্পর্কে সব আর্টিকেল পেতে এখানে ক্লিক করুন
এবং এডসেন্স নিয়ে নতুন ব্লগারদের প্রশ্নের উত্তর জানতে এখানে ক্লিক করুন

কোনটি বেস্ট ব্লগার নাকি ওয়ার্ডপ্রেস

এই প্রশ্নটিই বেশিভাগ নতুন ব্লগাররা করে থাকে যে, কোনটি থেকে শুরু করব ওয়ার্ডপ্রেস না ব্লগার আমি আমার পার্সোনাল এক্সপেরিয়েন্স থেকে বলব। যে আপনি যদি একদম নতুন ব্লগার হয়ে থাকেন মানে নতুন ব্লগিংয়ে আসেন ওয়েবসাইট ইত্যাদি এর আগে কাজ করেননি তাহলে আপনি blogger.com বেছে নিন কারণ এটি সম্পূর্ণ ফ্রি এবং এটি কোন রকম খরচ পড়বে না আপনার শুধুমাত্র ডোমেইন কিনলেই হচ্ছে। পড়ে যদি আপনি দেখেন যে আপনার ওয়েবসাইটে ভালো একটি ফলাফল পাচ্ছেন তাহলে আপনি তখনও ওয়ার্ডপ্রেস এ কনভার্ট করতে পারছেন।এখন দেখুন ওয়ার্ডপ্রেস হচ্ছে একটি ওয়েবসাইট বিল্ডিং টুলস এবং ব্লগার একটি ওয়েবসাইট বিল্ডিং টুলস দুটোর একই কাজ কিন্তু ওয়ার্ডপ্রেসে আপনি কিছু প্লাগিন পেয়ে যাবেন যেগুলোর মাধ্যমে আপনার কাজগুলো সহজ করে তুলতে পারবেন সহজেই আপনি এটি বুঝতে পারেন।এবং ওয়ার্ডপ্রেসে আপনি কিছু এক্সট্রা কাস্টমাইজেশন করতে পারবেন আপনার ওয়েবসাইটকে এতোটুকুই।

কোন প্লাটফর্মে কম সময়ে এ্যাডসেন্স এপ্রুভ মিলে

blogger.com হচ্ছে গুগলের একটি প্রোডাক্ট তাই এখানে আপনি একটি অপশন পেয়ে যাবেন এডসেন্স অ্যাড করার। এবং ব্লগার অ্যাডসেন্সে অনেক সুবিধা রয়েছে। ওয়ার্ডপ্রেসের অ্যাডসেন্সে ও অনেক সুবিধা রয়েছে সুবিধা নেই যে তা না একেকটা একেক সুবিধা। কিন্তু আপনি ব্লগারের এডসেন্স গুপ কম সময়ে এপ্রুভ পাবেন।

এডসেন্সে এপ্লাই এর জন্য কত পেজ ভিউ প্রতিদিন হতে হয়

বন্ধুরা এমন কোন লিখা নেই যে আপনার ওয়েবসাইটে তো টি পোস্ট হতে হবে অথবা আপনার ওয়েবসাইটে এত টি পেজ ভিউ হতে হবে তাহলে আপনার অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভ হবে। আপনার ওয়েব সাইট যদি হয় একটি blogger.com দিয়ে তৈরি ওয়েব সাইট এবং আপনার ওয়েবসাইটে যদি প্রতি পোস্টে 10 থেকে 40 টা ভিউহয় তাহলে আপনি অ্যাডসেন্সে জন্য এপ্লাই করতে পারবেন। আমার মনে হয় তখন এপ্লাই করে কোন লাভ নেই তাই প্রথমে আপনার ওয়েবসাইটের পপুলারিটি বৃদ্ধি করেন তারপর এডসেন্স এর জন্য এপ্লাই করুন। 

কোন কনটেন্ট এর উপর আর্টিকেল লিখবেন

এই কথা অনেকেই বলেন যে কোন টপিকের বা কোন ল্যাঙ্গুয়েজ এর উপর আর্টিকেল লিখবেন। তাদের উদ্দেশ্যে বলি এটি সম্পূর্ণ আপনার উপর নির্ভর করে। আপনি কোন ল্যাঙ্গুয়েজ এর উপর আর্টিকেল লিখবেন বাংলায় লিখতে পারেন আপনি হিন্দিতে লিখতে পারেন সমস্যা নেই। গুগলে কিন্তু বেশিরভাগ সার্চ হয় ইংরেজির উপর আমরা নিজেই যখন কোন জিনিস সার্চ দেই তা অবশ্যই ইংরেজিতে লিখে সার্চ দেই। 

এসইও এর ক্ষেত্রে কোনটি ভালো

বন্ধুরা blogger.com অথবা wordpress.com দুটোই কিন্তু একটি লেখার জায়গা। আপনি এখানে কিছু লিখবেন এবং সেটি মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া এবং ভিজিটর আনার এটাই হচ্ছে এই দুই প্ল্যাটফর্ম এর কাজ এবং এর জন্য আপনাকেও কিছু কাজ করতে হয়। আপনার ওয়েবসাইটের পপুলারিটি বৃদ্ধি করার জন্য এবং সেখান থেকে আপনার ইনকাম হয়। এখন এসইও এর ক্ষেত্রে আমি ব্লগারকেও কে খারাপ বলবো না আবার ওয়ার্ডপ্রেস কেউ খারাপ বলব না 2দিক থেকে বেস্ট ব্লগারের আপনি SEO করতে পারবেন খুব সহজে এবং ওয়ার্ডপ্রেস ও আপনি এসইও করতে পারবেন যার জন্য আপনি অনেক টুলস ও পেয়ে যাবেন।

0 Comments: